View Sidebar
যৌন জিহাদ বা বিবাহ জিহাদ – ধর্মের লেবাসে যৌনতা

যৌন জিহাদ বা বিবাহ জিহাদ – ধর্মের লেবাসে যৌনতা

September 22, 2013 10:19 pm0 comments

হঠাৎ করেই একটা খবর দেখে আৎকে উঠলাম। ‘যৌন জিহাদ’ করছেন তিউনিসিয়ার নারীরা! সিরিয়ায় সরকার বিরোধী যোদ্ধাদের উদ্দীপ্ত করবার জন্য ‘জিহাদ-আল নিকাহ’ -নামক স্বল্প সময়ের জন্য বিয়ে করছেন তারা। এমন কি একজন নারী ৩০ জন থেকে ১০০ জনের সাথে সহবাসে লিপ্ত হচ্ছেন!! এই ধরনের গল্প আগে শুনেনি। এতো দেখি ধর্মের দোহাই দিয়ে যৌনতার এক চুড়ান্ত রূপ। এটা কি হাদিস-কোরানে আছে?

এই সিরিয়ান জিহাদীদের সাপোর্ট করছে কে? খোদ আমেরিকা। সবসময়ই জিহাদীদের সাপোর্ট- এ থাকে এই আমেরিকা। আবার এই জিহাদীরাই আমেরিকার বিরুদ্ধে জিহাদ ঘোষনা করে। এখন প্রশ্ন হল জিহাদীদের চরিত্র কি? জিহাদীরা আসলে একটা রাজনৈতিক লক্ষ্যের যোদ্ধা। অথবা আরো সহজে বললে, জিহাদ একটি আন্তর্জাতিক করপোরেট ব্যবসা।

সিরিয়ায় মোল্লাদের মেয়ে মানুষের অভাব হওয়ায় তিউনিসিয়ার নারীদের আমদানী করছে জিহাদে অংশগ্রহন করার কথা বলে, তারপর ভোগ করছে অথবা বলা যায় গণধর্ষণ করছে ইসলামের নাম দিয়ে।

ফেসবুকে একটা পেজে এই খবর মিথ্যা বলে দাবী করা হয়েছে। এদের বক্তব্য যে স্ববিরোধী তা এটা পড়লেই বোঝা যায়। তারা দাবী করছে এটা যৌন জিহাদ নয় বিবাহ জিহাদ।

bogol

বিবাহ জিহাদ কি? “সুন্নি সালাফিপন্থী কিছু আলেমের মতে, যুদ্ধকালীন সাময়িক বিবাহ বা ‘জিহাদ আল নিকাহ’ বৈধ। এই ধরনের ‘জিহাদি বিবাহ’তে কোনো মুসলিম নারী কোনো মুজাহিদকে বিয়ে করে তাঁর যৌনসঙ্গী হতে পারেন। আবার দ্রুতই তাঁরা বিবাহবিচ্ছেদ ঘটাতে পারেন। এই ধরনের সাময়িক বিয়ের মাধ্যমে একজন নারী এক দিনে একাধিক পুরুষের শয্যাসঙ্গী হতে পারেন। (প্রথম আলো)”।

তাই এখন আমার প্রশ্ন হল…কেউ ইচ্ছা করলেই কি স্বল্প সময়ের জন্য বিবাহ (অবশ্যই যৌনতার জন্য) করতে পারবেন?

Leave a reply